ধুমপান ও তামাকের ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কে পরিবেশ সচেতনতা বৃদ্ধি দেশ ও জাতির করণীয়

================

দেশের প্রতিটি অফিস,আদালত, সচিবালয়, স্কুল-কলেজ, মাদ্রাসা ও বিশ্ববিদ্যালয় বিভিন্ন সরকারি, আধা সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত সরকারি, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠ্যপুস্তকে বিভিন্ন সমাবেশ,সেমিনার র‌্যালি, শ্যাম্পুজিয়াম এবং মাধ্যমে ধুমপান ও তামাকের মারাতœক ক্ষয়ক্ষতি সচিত্র চিত্র ও প্রতিবেদন তুলে ধরার জন্য একান্ত আবশ্যক। উল্লেখ্য যে, প্রতিটি প্রতিষ্ঠানে
অমনকি যানবাহন,হাটবাজার ও দোকান পাট ও খেলার মাঠে ধুমপান বর্জন ও কঠোর হস্তে দমন ও উল্লেখিত স্থানে ধুমপান সম্পূর্ণ রূপে নিষিদ্ধ ও বর্জন করতে হবে।
শুধু তাই নয় বর্তমানে পাবত্য বান্দরবান জেলা লামা, আলীকদম ও রামু কক্সবাজার চকিরয়ায় এক শ্রেণির কৃষক ব্যাপক হারে তামাক চাষ করে আসতেছে। ফলে অত্র এলাকায় পরিবেশের ও জন স্বাস্থের মারাতœক ক্ষয়ক্ষতি প্রভাব ফেলেছে।

যেমন: জমির উর্বরতা শক্তি হ্রাস, ছেলেমেয়েদের স্বাস্থের ঝুঁকি। বর্তমানে ঐ অঞ্চলে কৃষক অর্থকরি ফসল চাষাবাদ হৃাস বিমুখবর্তী। সর্বোপরি, এই তামাকে পোড়ানোতে
হাজার মণ জ¦ালানি কাঠ সংগ্রহ করে তামাক পোড়ানোর জন্য ব্যবহৃত হয় । যার দরুণ বন ও পরিবেশের অপূরণীয় ক্ষতি সাধিত হচ্ছে। তাদেরকে ক্ষতিকর তামাক চাষাবাদ থেকে বিরত রেখে অতি শীগ্রই প্রয়োজনীয় সবজি ও বিভিন্ন অর্থকরি ফসল চাষে উদ্ভুদ্দ করার জন্য প্রয়োজনীয় কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণ ও সংশ্লিষ্ট মহল বিশেষ প্রনোদনার মাধ্যমেও তাদেরকে এই মারাত্মক তামাক চাষ থেকে বিরত রাখার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে হবে।

শুধু তাই নয় সরকারের প্রচার মাধ্যমে যেমন: বেতার, টিলিভিশন,সংবাদপত্র ও বেসরকারি বিভিন্ন চ্যানেলের মাধ্যমে ব্যাপক হারে তামাক ও ধুমপানের কুফল ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কে সর্বস্তরের জনসাধারনকে অবহিত করার জন্য ব্যাপক জনসচেতনা সৃষ্টি তামাক ও ধুমপানের বিজ্ঞাপন নিশিদ্ধ করতে হবে। উল্লেখযোগ্য ভুমিকা পালন
করতে হবে এবং ব্যাপক মিডিয়ার প্রচার প্রসার ঘটিয়ে ধুমপান ও তামাকের ক্ষয়ক্ষতিগুলো দেশ ও জাতির সামনে তুলে ধরতে হবে এবং পরিবেশ অধিদপ্তর ও বন
বিভাগকে আরও যোরদার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে।

তাহলে তামাক ও ধুমপানের ক্ষয়ক্ষতির হাত থেকে দেশ ও জাতির মারাত্মক পরিবেশ দূষণ থেকে রক্ষার জন্য অনতি বিলম্বে বর্তমান তামাক ধুমপান নিয়ন্ত্রণ বিরুধি
আইনটি প্রয়োজনীয় কার্যকর ব্যবস্থা ও যথাযথ কঠোর হস্তে প্রয়োগ করার জন্য সংশ্লিষ্ট মহলের নিকট জোর দাবী জানাই।

একনজরে তামাক ও ধুমপানের ক্ষয়ক্ষতি সমূহ:
 ধুমপান ও তামাক দেশ ও জাতির মারাত্মক ক্ষতি করে।
 ধুমপান মানসিক অপূরণীয় আর্থিক ক্ষতি করে।
 ধুমপান ও তামাক পরিবেশের মারাত্মক হুমকি স্বরূপ।
 ধুমপান ও তামাক স্বাস্থের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর।
 ধুমপান ও তামাক মানুষের আয়ু কমায় এবং ধুমপান করা মানে বিষ পান করা
যা মানুষের মৃত্যু ঘটায়।
 ধুমপান ও তামাক মানুষের হৃদরোগের অন্যতম কারণ।
 ধুমপান ও তামাক এর কারণে মানুষের ফুসপূসে মারাত্মক ক্যান্সার এর মতো
মরণব্যধি রোগ সৃষ্টি করে।
 ধুমপান ও তামাক বায়ুকে দূষিত করে।
 ধুমপান ও তামাক মানুষের কোটি টাকা অপচয় হয়।
 ধুমপান আপনার জীবনকে যে কোন মূহুর্তে থামিয়ে দিতে পারে।

“বই পড়–ন, বই কিনুন, বই প্রিয়জনকে উপহার দিন।
মনে রাকবেন বই পড়ে কেউ কোনদিন দেওলিয়া হয়নি।”

==============
মোহাম্মদ নুুরুল আবছার (ফরেষ্ট অফিসার)
লেখক ও গবেষক

Leave A Reply

Your email address will not be published.