কুতুবদিয়ায় দিঘী ভরাট করে স্টেডিয়াম নির্মাণের প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটস ফাউন্ডেশন

প্রেস বিজ্ঞপ্তি :

পর্যাপ্ত খালি জায়গা থাকা সত্ত্বেও কক্সবাজার জেলার দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়ার বড়ঘোপ ইউনিয়নের ঐত্যিবাহী প্রাচীন জলাশয় উত্তর মুড়ালিয়া দিঘী ভরাট করে স্টেডিয়াম নির্মাণের প্রতিবাদ জানিয়েছে মানবাধিকার সংগঠন বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটস ফাউন্ডেশন -বিএইচআরএফ।

সংগঠনের চেয়ারপার্সন এডভোকেট এলিনা খান, মহাসচিব এডভোকেট জিয়া হাবীব আহসান,কক্সবাজার জেলা সভাপতি এডভোকেট মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম, সেক্রেটারি এডভোকেট সাকী এ কাউসার, কুতুবদিয়া উপজেলা সভাপতি এডভোকেট রফিকুল আহসান, সহ সভাপতি প্রফেসরএড. দেলোয়ার হোসাইন, সাধারণ সম্পাদক মনসুর হায়াৎ প্রমুখ এক যৌথ বিবৃতিতে কুতুবদিয়ার ফুসফুস খ্যাত অক্সিজেন পকেট বড়ঘোপ উত্তর মুড়ালিয়া দিঘী ভরাট করে স্টেডিয়াম নিমার্ণের প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

বিবৃতি দাতারা বলেন,স্টেডিয়াম নির্মাণের জন্যে আশে পাশে পর্যাপ্ত খালি জায়গা থাকা সত্ত্বেও পুকুর ভরাট করে স্টেডিয়াম নির্মাণের আত্নঘাতি সিদ্ধান্ত মর্মে উল্লেখ করেন। একপর্যায়ে চট্টগ্রামের ফুসফুস সিআরবি রক্ষার মতো কুতুবদিয়ার জলাশয় জীববৈচিত্র্য রক্ষায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আশু হস্তক্ষেপ প্রত্যাশা করেন। যেহেতু আশেপাশে স্বল্পমূল্যের প্রচুর আবাদি জমি আছে, সেহেতু সরকারি নিয়ম অনুযায়ী সেসব অধিগ্রহণ করে একটি সুন্দর-দৃষ্টিনন্দন-পরিবেশ বান্ধব-সবুজবেষ্ঠনী দেয়া আধুনিক স্টেডিয়াম নির্মাণ করে সাগরকন্যা কুতুবদিয়া দ্বীপকে ভবিষ্যতের বড় ধরণের পরিবেশ বিপর্যয়ের হাত থেকে রক্ষা সম্ভব। প্রকৃত পক্ষে একটা আধুনিক স্টেডিয়ামের পাশে সাঁতার কাটার মতো একটা দীঘি থাকলে, সেটা স্টেডিয়ামের পরিপূরক হয়ে, সুইমিংপুল, হিসেবে কাজ করবে এবং সৌন্দর্য বাড়াবে ।

এছাড়া ভবিষ্যতে জরুরী পানির প্রয়োজনে, প্রাকৃতিক দুর্যোগে ও অগ্নি নির্বাপণে ফায়ার সার্ভিসের জন্যে ‘ওয়াটার স্টোরেজ’ হিসেবে কাজে লাগবে ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.