শ্রম আইন লঙ্ঘন মামলায় ড. ইউনূসের বিচার শুরু

শ্রম আইন লঙ্ঘনের মামলায় নোবেল বিজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূসসহ চারজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত। অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে এই মামলায় আনুষ্ঠানিকভাবে বিচার শুরু হলো।

অন্য তিনজন হলেন গ্রামীণ টেলিকমের এমডি মো. আশরাফুল হাসান, পরিচালক নুরজাহান বেগম ও মো. শাহজাহান।

মঙ্গলবার (৬ জুন) অভিযোগ গঠন করে আদেশ দেন ঢাকার শ্রম আদালতের বিচারক বেগম শেখ মেরিনা ইসলাম।

আদেশের বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেন ড. ইউনূসের আইনজীবী ব্যারিস্টার আবদুল্লাহ আল মামুন। আদালতে আজ ইউনূসের পক্ষে তিনি শুনানি করেন। এর আগে সকালে আদালতে হাজির হন ড. ইউনূস।

এরপর তার আইনজীবী ব্যারিস্টার আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, আমরা ক্লায়েন্টের সঙ্গে আলোচনা করে আপিলের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবো।

এর আগে ৮ মে শ্রম আইন লঙ্ঘনের মামলা বাতিলের আবেদন খারিজের বিরুদ্ধে গ্রামীণ টেলিকমের চেয়ারম্যান ড. মুহাম্মদ ইউনূসের লিভ টু আপিল খারিজ করে দেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

গত বছরের ১৭ আগস্ট হাইকোর্টের বিচারপতি এস এম কুদ্দুস জামান ও বিচারপতি ফাহমিদা কাদেরের হাইকোর্ট বেঞ্চ মামলা বাতিলে ইউনূসের আবেদনে জারি করা রুল খারিজ করে রায় দেন। এরপর ড. মুহাম্মদ ইউনূস আপিল বিভাগে আবেদন করেন।

২০২১ সালের ৯ সেপ্টেম্বর ঢাকার তৃতীয় শ্রম আদালতে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান অধিদপ্তরের শ্রম পরিদর্শক আরিফুজ্জামান বাদী হয়ে ড. ইউনূসসহ চারজনের বিরুদ্ধে এ মামলা করেন।

ইউনূস ছাড়াও এমডি মো. আশরাফুল হাসান, পরিচালক নুরজাহান বেগম ও মো. শাহজাহানকে মামলায় বিবাদী করা হয়। মামলায় শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনে নির্দিষ্ট লভ্যাংশ জমা না দেওয়া, শ্রমিকদের চাকরি স্থায়ী না করা, গণছুটি নগদায়ন না করায় শ্রম আইনের ৪-এর ৭, ৮, ১১৭ ও ২৩৪ ধারায় অভিযোগ আনা হয়। পরে ওই মামলার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে আবেদন করা হয়।

একই বছরের ১২ ডিসেম্বর হাইকোর্ট মামলার কার্যক্রম স্থগিত করে রুল দিয়েছিলেন। এরপর রাষ্ট্রপক্ষ আপিল বিভাগে আবেদন করে। ওই আবেদনের শুনানি নিয়ে মামলা বাতিলে জারি করা রুল দুই মাসের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ দেওয়া হয়।

এর আগে ৩১ মে কর ফাঁকির অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় প্রায় ১২ কোটি টাকা পরিশোধ করতে গ্রামীণ ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা ড. মুহাম্মদ ইউনূসকে নির্দেশ দেন আদালত। হাইকোর্টের বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকার ও বিচারপতি রাশেদ জাহাঙ্গীরের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। সেই সঙ্গে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) নোটিশের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে ড. মুহাম্মদ ইউনূসের করা তিনটি আয়কর রেফারেন্স মামলা খারিজ করে দেন আদালত।

আদালতে ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়, ২০১১-১২ থেকে ২০১৩-১৪—এ তিন অর্থবছরে নিজের নামে গঠিত দুটি ট্রাস্ট ও একটি প্রতিষ্ঠানে ৭৭ কোটি ৩৯ লাখ টাকা স্থানান্তরের। আয়কর নথিতে বলা হয়েছে, এ টাকা মৃত্যুভীতি থেকে ওই প্রতিষ্ঠানে দান করেন তিনি।

ওই দিন উচ্চ আদালত জানান, ব্যক্তি ও পারিবারিক স্বার্থে ট্রাস্ট গঠন করেছেন ড. ইউনূস। মৃত্যুভীতি থেকে সেই ট্রাস্টে টাকা দান অকল্পনীয়। ফলে দানকর অব্যাহতি পাবেন না। পরিশোধ করতে হবে রাষ্ট্রের পাওনা প্রায় ১২ কোটি টাকা। রায়ে বলা হয়, তিন মামলায় ড. ইউনূসের কর ফাঁকির অভিযোগ প্রমাণিত।

Related Posts

  • জুলাই ১৭, ২০২৪
  • 59 views
কাল সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা

নিরাপদ ক্যাম্পাস নিশ্চিত ও এক দফা দাবিতে আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা করেছে কোটা সংস্কার দাবিতে আন্দোলনের প্লাটফর্ম ‘বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন’। বুধবার (১৭ জুলাই) রাতে আন্দোলনের…

Read more

  • জুলাই ১৭, ২০২৪
  • 7 views
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ, সিদ্ধান্ত না মেনে ভিসিকে বাংলো ত্যাগের নির্দেশ শিক্ষার্থীদের

অনির্দিষ্টকালের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধের সিদ্ধান্ত না মেনে উপাচার্যকে বাংলো ত্যাগের নির্দেশনা দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা নোটিশ দিয়েছে। নোটিশে বলা হয়েছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ভবন, কন্ট্রোলার ভবন, সকল অনুষদ ও…

Read more

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You Missed

কাল সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা, জরুরী সেবা ছাড়া চলবে না কোন গাড়ি

কাল সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা, জরুরী সেবা ছাড়া চলবে না কোন গাড়ি

কাল সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা

কাল সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা

কক্সবাজারে সাংবাদিকদের উপর ছাত্রলীগের হামলা

কক্সবাজারে সাংবাদিকদের উপর ছাত্রলীগের হামলা

কক্সবাজারে সাংবাদিকদের উপর ছাত্রলীগের হামলা

কক্সবাজারে সাংবাদিকদের উপর ছাত্রলীগের হামলা

ষড়যন্ত্রকারীরা গোয়েন্দা নজরদারিতে আছে: ডিবি হারুন

ষড়যন্ত্রকারীরা গোয়েন্দা নজরদারিতে আছে: ডিবি হারুন

সিদ্ধান্ত না মেনে ভিসিকে বাংলো ত্যাগের নির্দেশ শিক্ষার্থীদের

সিদ্ধান্ত না মেনে ভিসিকে বাংলো ত্যাগের নির্দেশ শিক্ষার্থীদের