ঈদগড়ে সেতু নেই তাই লাশ নিতে এতো দুর্ভোগ!

কক্সবাজার রামু উপজেলার ঈদগড় ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের রেনুরছড়া খালের উপর একটি সেতু না থাকার কারণে কাটাজঙ্গল- নতুন পাড়া গ্রামের দুই শতাধিক পরিবারের দুর্ভোগ চরম পর্যায়ে পৌঁছেছে। মরদেহ নিয়ে খাল পারাপারে তাদের পড়তে হয় বিপাকে।
২২ জুন বৃহস্পতিবার রাত ৮ টার দিকে সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু বরণ করেন নতুন পাড়া গ্রামের জনৈক সিরাজ মিয়ার স্ত্রী রশিদা বেগম নামের এক মহিলা। গতকাল শুক্রবার সকাল ১০ টায় জানাজার মাঠে লাশ নিয়ে খাল পারাপারে পড়তে হয়েছে এলাকাবাসীকে চরম দুর্ভোগে।
জানা গেছে, স্কুল ও মাদ্রাসা পড়ুয়া শিশুদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাতায়তের সুবিধার্থে স্থানীয়রা তাদের ব্যক্তিগত তহবিল থেকে টাকা খরচ করে বাঁশের সাঁকো তৈরী করে দিয়েছিল। সম্প্রতি সেই সাঁকোটি ও ভেঁঙ্গে গেছে।
সিরাজ মিয়া জানান, সামান্য বৃষ্টিতে খালে ঢলের পানি নেমে আসলে স্কুল ও মাদ্রাসা পড়ুয়া ছাত্র/ছাত্রীদের যাতায়াতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়। এমন কি অনেক সময় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাতায়ত বন্ধ হয়ে যায়। তা দেখে স্থানীয়রা মানবিক কারণে তাদের পকেটের টাকা খরচ করে ছাত্র/ছাত্রীসহ গ্রামবাসীর দুর্ভোগ লাঘবে একটি বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করে দিয়েছিল। তাও ভেঙ্গে যাওয়াতে চরম দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে এলাকাবাসীকে। তিনি সরকারী ভাবে ব্রীজ নির্মাণে কর্তৃপক্ষের সু-দৃস্টি কামনা করেন।
কক্সবাজার জেলার সুপরিচিত সঙ্গীত শিল্পী নুরুল আলম কুতুবীর বাড়ী ও ঈদগড়ের কাটাজঙ্গল নতুন পাড়া গ্রামে।

তিনি জানান স্থানীয় এবং জাতীয় নির্বাচন আসলে বিভিন্ন প্রার্থীরা খালের উপর এই ব্রীজ নির্মানের প্রতিশ্রুতি দিয়ে থাকেন কিন্তু জয়লাভ করে বেমালুম তার ভুলে যান।
তিনি জানান, কবরস্থানে মৃতদেহ নেওয়া ও স্কুল পড়ুয়া ছাত্র/ছাত্রীদের দুর্ভোগ লাঘবে সরকারী অর্থায়নে একটি সেতুর খুবই প্রয়োজন। তিনি এ ব্যাসপারে জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সু-দৃস্টি কামনা করেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.