ভারত থেকে আসার আগেই সালাহউদ্দিন জানালেন ক্ষমতায় আসছে বিএনপি

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) নেতা সালাহউদ্দিন আহমেদ বলেছেন বাংলাদেশে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হলে খালেদা জিয়ার নেতৃত্বাধীন বিএনপি অবশ্যই ক্ষমতায় ফিরে আসবে।

ভারতে অনুপ্রবেশের দায়ে খালাস পাওয়া সালাহউদ্দিন আহমেদ শুক্রবার সংবাদসংস্থা ইউএনআইকে বলেন, `দেশে যদি একটি তত্ত্বাবধায়ক সরকার ক্ষমতা গ্রহণ করে এবং এই তত্ত্বাবধায়ক সরকারের তত্ত্বাবধানে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলে অবশ্যই বিএনপি ক্ষমতায় আসবে।‘ যদিও তার অভিযোগ `বাংলাদেশে কোনো গণতন্ত্র নেই।‘
আগামী বছর ২০২৪ সালে বাংলাদেশে জাতীয় সাধারণ নির্বাচন। তার আগে শুক্রবার এই মন্তব্য করেছেন বিএনপির এই সিনিয়র নেতা।

অনুপ্রবেশের অভিযোগে আর বছর আগে ভারতে গ্রেপ্তারের পর জেল সাজা হয় তার। সম্প্রতি এই মামলায় খালাস পান তিনি। এরপর বাংলাদেশে ফিরে যাওয়ার জন্য তাকে ট্রাভেল পাস ইস্যু করে আসামের গুয়াহাটিতে অবস্থিত বাংলাদেশ সহকারী হাইকমিশন।
স্বাভাবিক ভাবেই খুশি আহমেদ। তিনি জানান ‘আমি দেশে ফিরে যেতে পারবো, এটা ভেবে খুব খুশি। ভারতে কিছু আনুষ্ঠানিকতা এবং শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষ করে আমি দেশে ফিরব।
আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের সমালোচক এই বিএনপি নেতা বলেন, ‘আমি এখন আমার স্ত্রীর আসার জন্য অপেক্ষা করছি। তিনি এখন শিলং আসবেন এরপর আমরা নয়াদিল্লিতে যাব। এর পরে আমরা এসে শিলংয়ে ফিরে এসে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করব এবং তারপরে বাংলাদেশে ফিরে যাব।’
২০০১-০৬ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশে খালেদা জিয়া সরকারের আমলে যোগাযোগমন্ত্রী ছিলেন বিএনপির এই সাবেক সংসদ সদস্য। ২০১৫ সালের ১১ মে তাকে ভারতের মেঘালয়ের গল্ফলিংক এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল।
তার দাবি ছিল, ২০১৫ সালের ১০ মার্চ ঢাকার উত্তরা এলাকা থেকে অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিরা তাকে অপহরণ করে। তবে কীভাবে তিনি মেঘালয়ে এসে পৌঁছলেন, তা তার মনে নেই।

এরপর ভারতে প্রবেশের বৈধ নথি বা ট্রাভেল পাস না থাকার কারণে মেঘালয় পুলিশ তার বিরুদ্ধে অনুপ্রবেশের মামলা দায়ের করেছিল।

সেই মামলায় ২০১৮ সালে শিলং-এর প্রথম শ্রেণির বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেট আহমেদকে খালাসের নির্দেশ দেয়। এরপর ২০২৩ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি শিলং-এর অতিরিক্ত ডেপুটি কমিশনারের আদালত প্রথম শ্রেণির বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেটের ২০১৮ সালের আদেশকেই বহাল রাখে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.