প্রধান বিচারপতি
বিচার বিভাগের গতি বাড়াতে নতুন বিচারক নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে

বিচার বিভাগের গতি বাড়াতে নতুন বিচারক নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েস সিদ্দিকী।

সোমবার (২৬ জুন) দুপুরে মানিকগঞ্জে বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন।

প্রধান বিচারপতি মানিকগঞ্জে পৌঁছে প্রথমে বিচারপ্রার্থীদের জন্য নির্মিতব্য ন্যায়কুঞ্জের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করেন। এরপর বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় যোগ দেন।

হাসান ফয়েস সিদ্দিকী বলেন, করোনার কারণে মামলা জট বেড়েছিল। তবে ধীরে ধীরে এই জট কমে আসছে। সারাদেশের আদালতগুলোতে মামলা জট কমাতে কাজ করছে বিচার বিভাগ। স্বল্প সময়ে ন্যায় বিচার নিশ্চিত করাই এখন মূল লক্ষ্য। বিচারের বাণী নিভৃতে কাঁদে সেটা আর হবে না, ইনশাআল্লাহ।

তিনি বলেন, বিচার বিভাগের গতি বাড়াতে নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে নতুন বিচারক। নতুন দুইশ জন বিচারক যদি যোগ দেন তাহলে সারাদেশে যে ঘাটতি আছে তা পূরণ করতে পারবো। বিচার বিভাগ রাষ্ট্রের অন্যতম প্রধান অঙ্গ। রাষ্ট্র ব্যবস্থার সঙ্গে সঙ্গত রেখে আমাদের দায়িত্ব বিচার বিভাগকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। এজন্য নানা পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে, যার একটি হচ্ছে ন্যায়কুঞ্জ।

প্রধান বিচারপতি বলেন, শপথ গ্রহণের প্রথমদিনই প্রধানমন্ত্রীকে বলেছিলাম, দেখেন বিচারকদের বসার জায়গা আছে। আইনজীবীদের বসার জায়গা আছে। নেই শুধুমাত্র বিচারপ্রার্থীদের, যাদের জন্য এই আদালত। যাদের জন্য এই বিচারক। তারা আদালত প্রাঙ্গণে এসে স্বস্তিতে বসবে এমন ব্যবস্থা সারাদেশে কোথাও নেই। অথচ সারাদেশে এই আদালত, বিচারক, আইনজীবী সবাই তাদের সেবার জন্য নিয়োজিত। এটা প্রস্তাবের পর ন্যায়কুঞ্জ নির্মাণের জন্য ৩৫ কোটি টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে।

এসময় হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি মো. রইস উদ্দিন, সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. গোলাম রব্বানী, হাইকোর্টের আপিল বিভাগের রেজিস্ট্রার মুন্সি মো. মশিউর রহমান, মানিকগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক জয়শ্রী সমদ্দার, জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খান ও জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট উৎপল ভট্টাচার্য প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.