বড়শিতে ধরা পড়ল ২৭ কেজির কোরাল, বিক্রি ২৫ হাজার টাকা

কক্সবাজারের টেকনাফে নাফ নদে বড়শি ফেলে ২৭ কেজি ওজনের একটি কোরাল মাছ ধরেছেন মোহাম্মদ কাদের নামে এক জেলে। টেকনাফের চৌধুরীপাড়ার ট্রানজিট জেটিঘাট থেকে শনিবার দুপুরে মাছটি ধরা হয়। পরে এটি স্থানীয় বাসস্টেশনের মাছ বাজারে ২৫ হাজার টাকায় বিক্রি করেন তিনি।

এর আগে, বৃহস্পতিবার (২৭ জুলাই) জেলে আবদুল আমিনের বড়শিতে ২৫ কেজি ওজনের একটি কোরাল পাওয়া যায়। এ মাছটি তিনি বিক্রি করেন ২৭ হাজার টাকায়।

জেলে মোহাম্মদ কাদের বলেন, চৌধুরীপাড়ার ট্রানজিট জেটি ঘাটে নাফ নদীর তীরে দুপুরে বড়শি ফেলেছিলাম। প্রায় দেড় ঘণ্টা পর বড়শি টানা শুরু করি। বড়শিটি খুবই ভারী মনে হলে কৌশলে টেনে জেটির পাশে নিয়ে আসি। একপর্যায়ে দেখতে পাই বড় একটি কোরাল মাছ বড়শিতে ধরা পড়েছে। পরে মাছটি পৌরসভার বাসস্টেশনের মাছ বাজারে নিয়ে যাই।

তিনি পৌরসভার বাসস্টেশনের মাছ বাজারে নিলে ২৫ হাজার টাকায় মাছটি কিনে নেন টেকনাফ সদর ইউনিয়নের হাজমপাড়ার ব্যবসায়ী শাহ জালাল।

মাছটির ক্রেতা শাহ জালাল বলেন, ২৭ কেজি ওজনের কোরাল মাছটি ২৫ হাজার টাকায় কিনেছি। মাছটি কেটে বিক্রি করা হবে। ভালো দামের আশায় মাছটি বরফ দিয়ে একটি ঝুড়িতে রেখেছি।

তিনি জানান, প্রতি কেজি ১ হাজার ৫০ টাকা দরে বিক্রি করতে চান। সন্ধ্যায় পর মাছটি বিক্রির জন্য বাসস্টেশন বাজারে আনা হয়েছে।

টেকনাফ উপজেলা জ্যেষ্ঠ মৎস্য কর্মকর্তা দেলোয়ার হোসেন বলেন, নাফ নদীর কোরাল মাছ খুবই সুস্বাদু। এ মাছ সাধারণত ৩০-৩৫ কেজি ওজনের হয়ে থাকে। কোনো কোনো সময় এর বেশি ওজনের কোরালও পাওয়া যায়। প্রজনন মৌসুমসহ সরকারি বিভিন্ন নিষেধাজ্ঞা মেনে চলায় নাফ নদীতে এমন বড় কোরাল পাওয়া যাচ্ছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.