রোহিঙ্গার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিল আদালত

কক্সবাজারে ১ কেজি ৬০ গ্রাম ক্রিস্টাল মেথ আইস উদ্ধারের মামলায় এক রোহিঙ্গার যাবজ্জীবন (৩০ বছর) সশ্রম দিয়েছেন কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালত। সেই সঙ্গে ২ লাখ টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরো এক বছর বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (৯ আগস্ট) শুনানি শেষে এ রায় ঘোষণা দেন জেলা জজ আদালতের বিচারক মো. ইসমাইল।

দণ্ডিত আসামি সৈয়দুল ইসলাম টেকনাফের জাদিমুড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্প নম্বর ২৭, ব্লক-বি/৩ এর মৃত ইব্রাহিমের ছেলে।

রায় ঘোষণাকালে আসামি আদালতের কাঠগড়ায় হাজির ছিলেন। তার পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট সাহাব উদ্দিন সাহীব।

রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট দীলিপ কুমার ধর।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট ফরিদুল আলম।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী দীলিপ কুমার ধর জানান, ২০২২ সালের ১৯ মে টেকনাফের দমদমিয়া কেউড়া বাগানে অভিযান চালিয়ে সৈয়দুল ইসলাম নামের রোহিঙ্গা নাগরিককে গ্রেফতার করে বিজিবি। পরে তার কাছে থাকা মাছ ধরার জাল থেকে ১ কেজি ৬০ গ্রাম প্রথম শ্রেণির মাদক ক্রিস্টাল মেথ আইস জব্দ করা হয়। যার আনুমানিক মূল্য পাঁচ কোটি ৩০ লাখ টাকা। এ ঘটনায় বিজিবির পক্ষ থেকে টেকনাফ থানায় মামলা করা হয়। দীর্ঘ তদন্ত প্রক্রিয়া ও সাক্ষী প্রমাণের ভিত্তিতে আসামির বিরুদ্ধে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে। রায়ে রাষ্ট্রপক্ষ সন্তুষ্ট।

মাদকের বিরুদ্ধে এমন রায় সরকারের ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি বাস্তবায়নে সহায়ক হবে বলে মন্তব্য করেছেন অ্যাডভোকেট দীলিপ কুমার ধর

Leave A Reply

Your email address will not be published.