কক্সবাজারে রোহিঙ্গা প্রতিরোধে স্থানীয়দের এগিয়ে আসার আহ্বান রোহিঙ্গা প্রতিরোধ কমিটির

কক্সবাজারের সর্বত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা রোহিঙ্গাদের ইউনিয়ন ভিত্তিক তালিকা করে পুরাতন এবং নতুন রোহিঙ্গা একই সাথে তাদের ছেলেমেয়ে নাতী নাতনী সবার তালিকা করে প্রত্যেকের এনআইডি, জন্মনিবন্ধন, পাসপোর্ট বাতিল করতে হবে। এছাড়া গ্রামে গঞ্জে শহরে রোহিঙ্গারা অনেকে জমি নিয়ে বাড়ি করে স্থায়ী হয়েছে তাদের তালিকা করে সমস্ত জমির রেজিস্ট্রি বাতিল করার উদ্দ্যোগ নিতে হবে। একই সাথে অনেকে ইতি মধ্যে সরকারি বেসরকারী চাকরীতে কর্মরত আছে তাদের স্থলে স্থানীয়দের চাকরীর ব্যবস্থা করতে হবে। এছাড়া নির্মাণ কাজে,বোট শ্রমিক,আবাসিক হোটেল,রেষ্টুরেন্ট,দোকানপাঠ সহ সর্বত্র কর্মরত রোহিঙ্গাদের নিয়োগ বাতিল করে স্থানীয়দের নিয়োগ প্রদান করতে হবে। এ জন্য কক্সবাজারের সমস্ত জনপ্রতিনিধি,জেলা প্রশাসন,পুলিশ প্রশাসন সহ বিভিন্ন সরকারি সংস্থাকে রাষ্ট্রের প্রতি দায়িত্বশীল হয়ে কাজ করার আহবান জানানো হয়। কক্সবাজার রোহিঙ্গা প্রতিরোধ কমিটির এক মত বিনিময় সভায় বক্তরা এসব কথা বলেন। এ সময় বক্তারা রোহিঙ্গাদের সহায়তাকারী স্থানীয়দের রাষ্ট্রদ্রোহ আইনে মামলা করার সহ বিচারের দাবী জানান। একই সাথে বিভিন্ন স্কুল কলেজ বিশ^বিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত শিক্ষার্থীদের শিক্ষা সনদে মিয়ানমারের নাগরিক লেখার দাবী জানান। ১০ সেপ্টেম্বর রবিবার বেলা ৫ টায় শহরের বার্মিজ মার্কেটস্থ কক্সডাইন রেস্তোরায় অনুষ্টিত মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন কক্সবাজার রোহিঙ্গা প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি মাহাবুবুর রহমান। সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মো: শহিদুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্টাতে মতামত ব্যাক্ত করেন। পাহাড়তলী সমাজ কমিটির সভাপতি ও রোহিঙ্গা প্রতিরোধ কমিটির সহ সভাপতি নুরুল আজিম সওদাগর,দৈনিক হিমছড়ি পত্রিকার সম্পাদক ও সাংবাদিক ইউনিয়ন কক্সবাজারের সভাপতি হাসানুর রশীদ,জেলা খেলাঘরের সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন,জাতীয় পুরুস্কার প্রাপ্ত নারী উদ্দ্যোক্তা নয়ন সেলিনা,রোহিঙ্গা প্রতিরোধ কমিটির প্রচার সম্পাদক সাংবাদিক নেজাম উদ্দিন,কক্সবাজার সদর উপজেলা প্রেসক্লাবের সহ সম্পাদক বলরাম দাশ অনুপম,বার্মিজ মার্কেট ব্যবসায়ি সমিতির সভাপতি মুছা কলিমউল্লাহ,সদর উপজেলা প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি এম এ সাত্তার, প্রচার সম্পাদক শাহী কামরান, সাংবাদিক মহিউদ্দিন মাহী, ইরফান,উখিংচ রাখাইন, জনী ধর ,কক্সবাজার সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ন আহবায়ক আসিফুল করিম,ফরিদ উদ্দিন লিটন, ওসমান মিয়া, মুহাম্মদ আবু সাঈদ জাহিদ, ছৈয়দুল করিম প্রমুখ।
এ সময় সর্বসম্মতিক্রমে কক্সবাজার শহরতলী সহ বিভিন্ন এলাকায় রোহিঙ্গা বিষয়ে জনসচেতনা তৈরির জন্য পথ সভা,লিফলেট বিতরণ,বিভিন্ন মসজিদে প্রচার সহ বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহন করা হয়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.