কক্সবাজারের মতো সৌন্দর্য্যের প্রকৃতি কোথাও দেখিনি : শরৎ উৎসবে কবির বিন আনোয়ার

কক্সবাজার শরৎ উৎসবে সাহিত্য-সংস্কৃতিসেবীদের মিলন মেলা কোমল, শান্ত-স্নিগ্ধ কাশফুলের সৌরভ যেন নেমে এসেছিল কয়েকটি ঘন্টার জন্য।

প্রকৃতির বিমুগ্ধ শরতের সন্ধ্যায় প্রাণে-প্রাণ মিলিয়ে সাহিত্য, সংস্কৃতিসেবীদের বসেছিল মিলন মেলা।

যেখানে সজীব বৃক্ষ আর শেফালি ফুলের মদির গন্ধভরা মিষ্টি হাওয়া বা পাখির গুঞ্জনে মুখরিত প্রিয় স্বদেশ খুঁজে বেড়িয়েছে কক্সবাজারের নবীন-প্রবীণ সাহিত্য, সংস্কৃতিসেবীরা।

সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, কক্সবাজার জেলা আয়োজিত শরৎ উৎসব ১৪৩০ ঘীরেই বুধবার তৈরি হয়েছিল এমন পরিবেশ।

কক্সবাজার পাবলিক লাইব্রেরীর শহীদ সুভাষ হলে সন্ধ্যার পর পর শুরু হয় উৎসবের আনুষ্ঠানিকতা।

খেলাঘর কক্সবাজার জেলার সহযোগিতায় আয়োজিত এই অনুষ্ঠানটি জুড়ে ছিল গান, কবিতা, নৃত্য ও কথামালা।

রাত সাড়ে ৯ টার আগ পর্যন্ত চলামন অনুষ্ঠানে কেবল শরৎকে উপস্থাপন হয়েছে বাংলার চিরায়ারিত সাংস্কৃতিক বন্ধনায়।

অনুষ্ঠানের কথামালার প্রধান অতিথি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ও মন্ত্রিপরিষদের সাবেক সচিব কবির বিন আনোয়ার বলেন, বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দর প্রকৃতির শহর কক্সবাজার।

সমুদ্র, পাহাড়, ঝর্ণা, দ্বীপ মিলেই সৌন্দর্যের এই পর্যটন শহরে শরৎ উৎসব যেন এক আবহের তৈরি করেছে।

তিনি ব্যক্তিগত জীবনে ৬২ রাষ্ট্র ভ্রমণের অভিজ্ঞার কথা স্মরণ করে বলেন, কক্সবাজারের মতো সৌন্দর্য্যের প্রকৃতি আমি কোথাও দেখিনি। এই সৌন্দর্য্যের শহরকে আরও আধুনিক করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জেলা জুড়ে উন্নয়ন যজ্ঞ চালিয়ে যাচ্ছে।

এই উন্নয়ন ধারাবাহিক রাখতে তিনি সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে দেশপ্রেম ও আওয়ামীলীগ সরকারের পক্ষে থাকার আহবান জানান।

সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট কক্সবাজার জেলার সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজার-৩ আসনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী মো. নজিবুল ইসলামের স্বাগত বক্তব্যের শুরু উৎসবের বিশেষ অতিথি ছিলেন, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী।

উদ্বোধন করেন কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র মো. মাহাবুবুর রহমান চৌধুরী। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন, কবির বিন আনোয়ারের সহধর্মীনি তৌফিকা আহমেদ।

এতে কক্সবাজার থিয়েটারের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট তাপস রক্ষিত, নাট্য নির্দেশক অধ্যাপক স্বপন ভট্টাচার্য, কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জাহেদ সরওয়ার সোহেল, জেলা খেলাঘরের সভাপতি সুনীমল পাল পান্না, সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন।

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট কক্সবাজারের সভাপতি সত্যপ্রিয় চৌধুরী দোলন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.