বিএনপি নয়াপল্টনে, আ.লীগ বায়তুল মোকাররমে সমাবেশের অনুমতি পাচ্ছে!

আগামী শনিবার আওয়ামী লীগ ও বিএনপিতে তাদের পছন্দমতো জায়গাইতেই সমাবেশ করার অনুমতি দেবে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) তবে আনুষ্ঠানিকভাবে এখনও দল দুটিকে পুলিশের এই সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়নি।

ডিএমপির একটি সূত্র জানিয়েছে শুক্রবার ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ এবং বিএনপিকে এ ব্যাপারে আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়ে দেওয়া হবে।

না প্রকাশ না করার শর্তে একাত্তরকে বলেন, দুই দল তাদের সমাবেশের পরিকল্পনা পুলিশকে জানিয়েছে। ডিএমপি থেকে যে শর্ত দেওয়া হবে সেই শর্ত মেনে তাদের নিজ নিজ পছন্দমতো জায়গায় সমাবেশ করতে দেওয়া হবে।

সরকার পতনের দাবি আদায়ের ‘এক দফার চূড়ান্ত আন্দোলনের’ অংশ হিসেবে শনিবারের ওই সমাবেশ গত ১৮ অক্টোবর আহ্বান করা হয়।

পরে একই দিন বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ গেটে শান্তি ও উন্নয়নের সমাবেশ ডাকে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ।

গত ২০ অক্টোবর সমাবেশের স্থান উল্লেখ করে ডিএমপি কমিশনার বরাবর চিঠি দেন দলের ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখার দপ্তর সম্পাদক মো. রিয়াজ উদ্দিন রিয়াজ।

পরের দিন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আরেকটি চিঠিতে নয়াপল্টনে জমায়েত হওয়ার সিদ্ধান্ত জানিয়ে আরেকটি চিঠি দেন ডিএমপি কমিশনারকে।

সমাবেশের দুই দিন আগে বৃহস্পতিবার জানা যায়, বুধবার দুই দলকেই সড়কের বদলে ময়দানে জমায়েত হওয়ার প্রস্তাব দিয়ে চিঠি দেয় মহানগর পুলিশ।

দল দুটিই তাদের সিদ্ধান্তে অনড় থেকে ডিএমপিকে চিঠি লিখে জানায়, তারা সমাবেশের স্থান বদলাতে পারবে না।

আওয়ামী লীগ সাধারণ ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বায়তুল মোকাররম দক্ষিণ গেট, অনলি ওয়ান ভেন্যু আই মেনশন, আর দ্বিতীয় কোন কথা নয়। যেটা বলেছি সেটাই।’

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভীও সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, তাদের অবস্থান ব্যাখ্যা করেন।

দুই দলের সমাবেশ ঘিরে রাজনৈতিকসহ সব মহলে তুমুল আলোচনা চলছে। আওয়ামী লীগ বলছে, বিএনপি কোনো বিশৃঙ্খলা করলে কঠোর হবে তারা। অন্যদিকে বিএনপি বলছে, সরকার তাদের আন্দোলন দমন করতে চায়।

এদিকে শনিবার যুদ্ধাপরাধের দায়ে অভিযুক্ত দল জামায়েতে ইসলামী শাপলা চত্বরে সমাবেশ করতে চাইলেও তাদের অনুমতি দেওয়া হবে না বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। তবে জামায়াত বলেছে, তারা শনিবার শাপলা চত্বরে থাকবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.