প্রধান শিক্ষককে ধারালো বটি দিয়ে হত্যার চেষ্টা, কর্মচারী আটক

এম শিবলী সাদেক, পেকুয়া থেকে

কক্সবাজারের পেকুয়ার অন্যতম বিদ্যাপীঠ পেকুয়া সরকারি মডেল জিএমসি ইনস্টিটিউশনের প্রধান শিক্ষকের কক্ষে প্রবেশ করে প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ জহির উদ্দিন (৫৫) কে ধারালো বটি দিয়ে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে ওই স্কুলের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী।

বৃহস্পতিবার (২ নভেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে উপজেলা সদরের পেকুয়া সরকারি মডেল জিএমসি ইনষ্টিটিউশনে  এ ঘটনাটি ঘটেছে। পরে বিকাল ৪টার দিকে পেকুয়া চৌমুহুনী এলাকায় অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত কর্মচারী হারুন অর রশিদ প্রকাশ নাছির (৪৩) কে আটক করেছে পেকুয়া থানা পুলিশ।

এ ঘটনায় প্রধান শিক্ষক জহির উদ্দিন বাদি হয়ে অভিযুক্ত কর্মচারী নাছিরকে আসামী করে থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছেন।

থানায় দায়েরকৃত এজাহার ও বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যালয়ের বিভিন্ন মালামাল চুরিসহ নানান অপরাধ কর্মকান্ডে লিপ্ত ছিলেন স্কুলের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী হারুন অর রশিদ নাছির।

এসব অপরাধ কর্মকান্ড থেকে বিরত থাকতে প্রধান শিক্ষক ওই কর্মচারীকে একাধিকবার বারণ করেন। এমনকি তার স্কুলের প্রাতিষ্ঠানিক ভাতা বন্ধ করে দেন চুরির দায়ে। এতে প্রধান শিক্ষকের প্রতি বরাবরই ক্ষিপ্ত ছিলেন অভিযুক্ত নাছির। সে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে কিছুদিন আগে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগও দিয়েছিলেন। এরই জের ধরে এই হামলা বলে ধারণা করছেন স্থানীয়রা।

সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়,  ঘটনার দিন বৃহস্পতিবার (২ নভেম্বর) দুপুরে প্রধান শিক্ষক জহির উদ্দিন তার কার্যালয়ে বসে কাজ করার সময় হঠাৎ প্রধান শিক্ষককের কক্ষে প্রবেশ করে কক্ষের দরজা আটকে দেন অভিযুক্ত নাছির। দরজা আটকে দিয়ে প্রধান শিক্ষকের টেবিলের দিকে এগিয়ে এসে দুইটি ধারালো বটি বের করে প্রধান শিক্ষক জহির উদ্দিনকে হত্যার চেষ্টা চালায়। এসময় দুই জনের মধ্যে ধস্তাধস্তি হয়। পরে দরজা খুলে প্রধান শিক্ষক বের হয়ে প্রাণে রক্ষা পান।

প্রধান শিক্ষক মাষ্টার জহির উদ্দিন বলেন, দুপুরে বিদ্যালয়ের লাল বিল্ডিংয়ের ২য় তলায় আমার কক্ষে বসে কাজ করছিলাম। এসময় হঠাৎ বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণীর কর্মচারী নাছির ধারালো দুইটি বটি নিয়ে ভিতরে প্রবেশ করে আমাকে হত্যার চেষ্টা চালালে প্রতিহত করি।

এ ঘটনায় তিনি অভিযুক্ত কর্মচারীর বিরুদ্ধে থানায় এজাহার দায়ের করেছেন।

পেকুয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইব্রাহিম পাশা বলেন, প্রধান শিক্ষককে হত্যা চেষ্টার ঘটনায় জড়িত কর্মচারী নাছিরকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে পেকুয়া জিএমসির প্রধান শিক্ষককে হত্যা চেষ্টার ঘটনায় নিন্দা ও হামলাকারীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন প্রাক্তন শিক্ষক ও পেকুয়ার শিক্ষক সমাজ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.