কক্সবাজার তানযীমুল উম্মাহ হিফজ মাদ্রাসায় অনুষ্ঠানে বক্তারা
হাফেজ হলেই শেষ নয়, কোরআনকে মৃত্যু পর্যন্ত ইয়াদ রাখতে হবে

স্টাফ রিপোর্টার

তানযীমুল উম্মাহ হিফজ মাদ্রাসা মানেই হাফেজ তৈরির কারখানা। কখনো ৮৬ দিনে হাফেজ, আবার কখনো তিন মাস আবার কখনো ২ বছরেই কোরআনে হাফেজ হয়েছেন এই প্রতিষ্ঠান থেকে। বৃহস্পতিবার বিকেলেও এই প্রতিষ্ঠানটির দুই শিক্ষার্থী কোরআনে হাফেজ হয়েছেন। এই উপলক্ষে হিফয সমাপনী সবক ও হুসনে সাওত প্রতিযোগীতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে কক্সবাজার তানযীমুল উম্মাহ হিফজ মাদ্রাসায়। ওই সময় ৬০ জন হুসনে সাওত প্রতিযোগীতায় বিজয়ীদের পুরস্কার তুলে দেন তানযীমুল উম্মাহ ফাউন্ডেশনের ভাইস চেয়ারম্যান ড. মীম আতিক উল্লাহ।
ওই সময় শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, হাদরের শোরে তেলওয়াত করা মনে তেলওয়াতের সুন্দর্য্য। শুধু কোরআন পড়ে হাফেজ হলেই শেষ নয়, কোরআনকে মৃত্যু পর্যন্ত ইয়াদ রাখতে হবে।
তানযীমুল উম্মাহ ফাউন্ডেশনের ভাইস চেয়ারম্যান ড. মীম আতিক উল্লাহ বলেন, জীবনকে পরিচালনার জন্য কোরআন অনুযায়ী আমল করতে হবে। প্রতিষ্ঠান থেকে হাফেজ হলেই হবে না নিজের আমল দিয়ে পরিবার ও পরিবেশকে বদলাতে হবে।
কক্সবাজার তানযীমুল উম্মাহ হিফজ মাদ্রাসায় আয়োজিত হুসনে সাওত প্রতিযোগীতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপত্বি করে প্রতিষ্ঠানটির প্র্রিন্সিপাল রিয়াদ হায়দার। কো-অর্ডিনেটর আবু সায়েম মোহাম্মদ ফোরকান সহকারী কো অর্ডিনেটর মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিনের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, অধ্যাপক নাজিম উদ্দিন, তানযীমুল উম্মাহ গালর্স হিফজ মাদ্রাসা কক্সবাজার শাখা প্রধান কারী ইয়াহিয়া মানিক। এই অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শিক্ষার্থীর অভিভাবকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.