প্রার্থিতা বাতিল হওয়ায় মাটিতে লুটিয়ে কান্না

মানিকগঞ্জ-১ আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য প্রার্থী আব্দুল আলী বেপারীর প্রার্থিতা বাতিল করেছেন মানিকগঞ্জ জেলা প্রশাসক ও রির্টানিং অফিসার রেহেনা আকতার। এ সময় তার প্রার্থিতা বাতিল হওয়ায় মাটিতে লুটিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।

=রোববার (৩ ডিসেম্বর) দুপুরে মানিকগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র যাচাই শেষে তার প্রার্থিতা বাতিল হওয়ায় এ কাণ্ড ঘটান আব্দুল আলী বেপারী।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, প্রার্থিতা বাতিলের কথা শুনে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে প্রার্থিতা ফেরত চেয়ে মাটিতে কান্নায় লুটিয়ে পড়েন আব্দুল আলী। পরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা এসে তাকে সান্ত্বনা দেয় এবং প্রার্থিতা ফিরে পেতে আপিলের পরার্মশ দেন।

এ সময় আব্দুল আলী বেপারী গণমাধ্যমকে বলেন, আমি এখন ভোটারদের মুখ দেখাবো কেমনে, আমি আর বাচুম না। আমি ভোট দিতে না পারলে মরুম, আমার জীবন রাখুম না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আমার আবেদন, আমার ভোট আমাকে দিয়ে যেন মরতে পারি। আমার বিশ্বাস আছে, মানুষ আমাকে ভোট দেবে। আমি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে সংসদে যাব। যেকোনো চক্রান্তের মাধ্যমে আমার নমিনেশন বাদ দেওয়া হয়েছে। আমি এই চক্রান্ত বিশ্বাস করি না। আমাকে আমার ভোট দেওয়ার সুযোগ দেওয়া হোক।

উল্লেখ্য, মো. আব্দুল আলী বেপারী ২০১১, ২০১৬ ও ২০২১ সালে ঘিওর উপজেলার সিংজুরি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করেন এবং নির্বাচনে পরাজিত হন। এবার দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মানিকগঞ্জ-১ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.