পাটুরিয়ায় ফেরিডুবির কারণ নিয়ে পাওয়া যাচ্ছে তিন ধরনের ভাষ্য

মানিকগঞ্জের পাটুরিয়ায় ‘রজনীগন্ধা’ ফেরিডুবির কারণ নিয়ে ভিন্ন ভিন্ন বক্তব্য দিয়েছেন দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা। বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) কর্তৃপক্ষ বলছে, বালুবাহী বাল্কহেডের ধাক্কায় ফেরিটি ডুবে যায়।
অন্যদিকে নদীতে ডুবোচরে ধাক্কা খেয়ে ফেরির তলা ফেটে গিয়ে এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছে নৌ পুলিশ। তবে ফেরিতে থাকা প্রত্যক্ষদর্শী ব্যক্তিরা বলছেন, ফেরিতে পানি উঠে কাত হয়ে ধীরে ধীরে ফেরিটি তলিয়ে যায়।

গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত একটার দিকে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাট থেকে পাটুরিয়ার উদ্দেশে ছেড়ে আসে ইউটিলিটি (ছোট) ফেরি রজনীগন্ধা। ফেরিতে ছোট-বড় ৯টি ট্রাক ছিল। ঘন কুয়াশায় রাত দেড়টার দিকে পাটুরিয়ার ৫ নম্বর ঘাটের অদূরে পদ্মা নদীতে ফেরিটি আটকে যায়। এ সময় পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথে ফেরি চলাচল বন্ধ থাকে। আজ সকাল আটটার পরপরই ফেরিটি ডুবে যেতে থাকে। তখন যানবাহনের চালক, সহকারী ও ফেরিতে কর্মরত লোকজন দ্রুত নদীতে ঝাঁপ দেন।

খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ও প্রশাসনের লোকজন ট্রলার নিয়ে ঘটনাস্থলে যান। এর আগে নদীতে ঝাঁপ দেওয়া কয়েকজন সাঁতরে নদীর তীরে ওঠেন। এ ছাড়া ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ছয়জনকে উদ্ধার করে তীরে নিয়ে আসেন। ততক্ষণে ফেরিটি যানবাহন নিয়ে পানিতে তলিয়ে যায়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.