কউকের নির্দেশনাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি, গভীর রাতে ভবন নির্মাণে ব্যস্ত আবু ছৈয়দ

স্টাফ রিপোর্টার
বহুতল ভবন নির্মাণ করতে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ থেকে ১২ ফিট রাস্তার রাখার শর্তে অনুমোদন পেয়েছিলেন বিজিবি ক্যাম্প সিকদার পাড়ার এলাকা আবু ছায়েদ নামে এক ব্যক্তি। নির্মাণ শ্রমিক দিয়ে যখন ভবনের কাজ করা হবে তখনই কউককে জানানোর কথা। কিন্তু আবু ছৈয়দ কোন ভাবেই না জানিয়ে ১২ ফিট রাস্তা না রেখে বহুতল ভবন নির্মাণ করছে রাত-বিরাতে। কবরস্থান, স্থানীয় লোকজনদের চলাচলের রাস্তা না রেখে এই ভবনের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে তিনি। নিজেকে চট্টগ্রামের বাসিন্দা পরিচয় দিলেও তিনি এই এলাকায় কখনো বসবাস করেননি। স্থানীয়দের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের একটি টিম গিয়ে নির্মাণাধীন তার বাড়ি পরির্দশন করেছেন। সেখানে অনুমোদনের ব্যথয় ঘটিয়েছেন আবু ছৈয়দ। ওই ভবন পরিদর্শনে কউকের কর্মকর্তরা ভবন নির্মাণ থেকে বিরত থাকার নির্দেশনা দিয়েছেন। উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তরা আসার পরেই কাজ শুর” করেন শ্রমিকরা। এক পর্যায়ে গভীর রাতেও কাজ চালিয়েছেন আবু ছৈয়দ।
এলাকার সচেতন যুবক কায়সার হামিদ জানান, এই রাস্তা দিয়ে কবরস্থান, স্কুল, শতশত বসতবাড়ি হবার সম্ভাবনা রয়েছে। ছোট্ট একটি রাস্তা দিয়ে মৃতদেহ খাটিয়াতে করে কবরস্থানে নেওয়া যাবে না। এই বিষয়ে মঞ্জুর আলম, মোস্তাক আহমেদ, জাকির হোসেন বলেন, আমরা সবাই যার যার মতো করে নিজস্ব জমি থেকে রাস্তার জন্য জমি ছেড়ে দিয়েছি। কিন্তু, অবৈধ টাকার প্রভাবে আবু ছৈয়দ কোনভাবে জমি ছাড়ছেন না।
এদিকে আবু ছায়েদের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ থেকে অনুমোদন নিয়েছে বলে দাবি করেন এবং এটি তার নিজস্ব জমি কোনভাবে ছাড়বেন বলে জানিয়ে দেন।
ভবিষ্যতে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি, এ্যাম্বুলেন্স চলাচল করতে না পারলে বড় ক্ষতির সমুক্ষীন হবে এলাকাবাসী।
এদিকে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের ইমারত নির্মাণে কর্মকর্তা ডেভিট চাখমা বলেন, কউকের নির্দেশনা না মানলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে আবু ছৈয়দের বিরুদ্ধে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.