বেইলি রোডে আগুনে স্ত্রী-সন্তানসহ কক্সবাজারের শাহজালালের লাশ শনাক্ত

রাজধানীর বেইলি রোডে আগুনের ঘটনায় সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা শাহজালাল উদ্দিন (৩৪) ও তার স্ত্রী-সন্তানের লাশ শনাক্ত করেছেন স্বজনরা। এনিয়ে ৪৩ জনের মরদেহ শনাক্ত হল।
নতুন করে শনাক্ত হওয়া শাহজালাল উদ্দিনের স্ত্রী গৃহিণী মেহেরুন্নেছা জাহান হেলালী (২৪) ও সাড়ে ৩ বছরের মেয়ে ফায়রুজ কাশেম জামিরা।

শুক্রবার (১ মার্চ) রাত সাড়ে ৯টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে এসে তাদের ৩ জনের মরদেহ শনাক্ত করেন শাহজালালের শ্বশুর মুক্তার আলম হেলালী।

তিনি জানান, শাহজালাল সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা। তার অফিস ঢাকার কেরাণীগঞ্জের পানগাঁও। কক্সবাজার উখিয়া থানার পূর্ব গোয়ালিয়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা ডা. আবুল কাশেমের ছেলে শাহজালাল।

তিনি বলেন, শাহজালাল স্ত্রী ও একমাত্র মেয়েকে নিয়ে কেরাণীগঞ্জের বসুন্ধরা রিভারভিউ এলাকায় থাকতেন। তার অফিস থেকে ৩ দিনের ছুটি পেয়েছিলেন। সেই ছুটি কাটাতে পরিবার নিয়ে খাগড়াছড়ি ঘুরতে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছিলেন। সেই অনুযায়ী রাজারবাগ এলাকায় গ্রিন লাইন বাসের টিকেটও কেটেছিলেন। বৃহস্পতিবার রাতে বাসে চড়ে রওনা দেবে। সেই জন্য সন্ধ্যায় ৩ জন বাসা থেকে রওনা হন। এরপর বেইলি রোডে ওই ভবনের কোনো একটি রেস্টুরেন্টে খাবার খেতে উঠেছিলেন। সেখানেই আগুনে পুড়ে তাদের মৃত্যু হয়েছে।

ঢাকা মেডিকেল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ মো. বাচ্চু মিয়া জানান, স্বজনরা তাদের চেহারা দেখেই পরিচয় শনাক্ত করতে পেরেছেন। তবে রাতে এই ৩টি মরদেহ হস্তান্তরের সম্ভাবনা নেই। শনিবার সকালে হস্তান্তর করা হবে।

এর আগে নিহত ৪৬ জনের মধ্যে ৪০ জনের মরদেহ হস্তান্তর করা হয়। এখনও শনাক্ত হয়নি তিনটি দেহ। এরমধ্যে দুটি মরদেহ পুড়ে অঙ্গার যাওয়ায় বোঝা যাচ্ছে না। আর একটি লাশ (বৃষ্টি/অভিশ্রুতি) হিন্দু না মুসলিম এ দ্বন্দ্বে পড়ে আছে।
ঢাকার নুরুল ইসলাম (৩২), ঢাকার পপি রায় (৩৬), যাত্রাবাড়ীর সম্পূর্ণা পোদ্দার (১২), কুমিল্লার জান্নাতিন তাজরীন (২৩), ঢাকার নাজিয়া আক্তার (৩১), ঢাকার আরহাম মোস্তফা আহমেদ, ঢাকার মাইশা কবির মাহি (২১), ঢাকার মেহেরা কবির দোলা (২৯), কুমিল্লার পম্পা সাহা (৪৭), মাদারীপুরের জিহাদ হোসেন (২২), মৌলভীবাজারের আতাউর রহমান শামিম (৬৩), যশোরের কামরুল হাবিব জামান রকি (২০), টাঙ্গাইলের মেহেদী হাসান (২৭), কুমিল্লার ফৌজিয়া আফরিন রিয়া (২২), কুমিল্লার নুসরাত জাহান শিমু (১৯), ঢাকার সৈয়দা ফতেমাতুজ জোহরা (১৬), ঢাকার সৈয়দ আব্দুল্লাহ (৮), ঢাকার স্বপ্না আক্তার (৪০), মুন্সিগঞ্জের জারিন তাসনিম প্রিয়তী (২০), নারায়ণগঞ্জের শান্ত হোসেন (২৩), ভোলার দিদারুল হক (২৩), হবিগঞ্জের রুবি রায় (৪৮), হবিগঞ্জের প্রিয়াঙ্কা রায় (১৮), ঝালকাঠির তুষার হাওলাদার (২৬), পটুয়াখালীর জুয়েল গাজী (৩০), নোয়াখালীর আসিফ (২১), চাঁদপুরের মিনহাজ উদ্দিন (২৫), ভোলার নয়ন (১৭), পাবনার সাত্তার হোসেন (২০), পিরোজপুরের তানজিলা নওহিন (৩৫), ঢাকার লুৎফুন নাহার লাকী (৫০), শেরপুরের শিপন মিয়া (২১), ঢাকার সংকল্প (৮), ঢাকার আলিশা (১৩), বরিশালের নাহিয়ান আফিন (১৯), ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আমেনা আক্তার (১৩), ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশরাফুল ইসলাম (২৫), ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সৈয়দ মোবারক হোনের (৪৮), ঢাকার নাফিসা ইসলাম (২০) ও বরগুনার নাঈম (১৮)।

Leave A Reply

Your email address will not be published.