দুই ক্ষমতাধরের লড়াই হবে উখিয়া উপজেলা নির্বাচনে

ডেস্ক রিপোর্ট:

কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার এখন প্রধান আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু হলো ৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। হাটে বাজারে, চায়ের আড্ডা সবখানেই চলছে উখিয়া উপজেলা নির্বাচনের সম্ভাব্য প্রার্থীদের নিয়ে নানা আলোচনা। নির্বাচনের সময় যতোই ঘনিয়ে আসছে ততোই মাঠ চষে বেড়াচ্ছে সম্ভাব্য প্রার্থীরা। এইবার উখিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান পদে সাবেক মন্ত্রী পরিষদ সচিব শফিউল আলম এর পরিবারের সাথে উখিয়া-টেকনাফের সংসদ সদস্য শাহিন বদির লড়াই দেখার যাবে বলে ধারনা করা হচ্ছে। ক্ষমতাধর দুই শক্তির লড়াইয়ে এবার জমে উঠবে উখিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান পদের নির্বাচন।

নির্বাচন কমিশনের সূচী অনুযায়ী আগামী ১৮ মে কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সরকারি দল আওয়ামিলীগ এই নির্বাচনে প্রতিক না দেয়ার ঘোষানা দেয়ার ফলে এইবারের উপজেলা নির্বাচন অনেক বেশি প্রতিদন্ধিতাপূর্ন হবে বলে মনে করছেন সাধারন ভোটাররা। আওয়ামিলীগ এর একাধিক প্রার্থী চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে এই নির্বাচনে অংশনেয়ার জন্য প্রচারনা শুরু করে দিয়েছেন।

৬ষ্ঠ উপজেলা নির্বাচনে উখিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার ঘোষনা দিয়েছেন উখিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও রাজাপালং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী। তিনি ইতিমধ্যে উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় জনসংযোগ শুরু করে দিয়েছেন। দলের বর্ধিতসভা ডেকে উখিয়া উপজেলার আওয়ামীলীগের সকল নেতা কর্মীকে তার পক্ষে কাজ করার অনুরোধ জানিয়েছেন হেভিওয়েট এই নেতা।

উখিয়া-টেকনাফের বর্তমান সংসদ সদস্য শাহিন আক্তারের ছোট ভাই ও এমপি বদির শ্যালক হিসেবে জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী এখনও পর্যন্ত উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসাবে সবার চেয়ে এগিয়ে আছেন।

উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার ঘোষনা দিয়েছেন সাবেক মন্ত্রী পরিষদ সচিব শফিউল আলম এর ছোট ভাই, হলদিয়াপালং ইউনিয়ন পরিষদ এর সাবেক সফল চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ শাহা আলম। উচ্চ শিক্ষিত ও সকলের কাছে গ্রহনযোগ্য মানুষ হিসেবে অধ্যক্ষ শাহা আলমও বেশ জনপ্রিয়। ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান থাকা কালিন এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন করে পুরো উখিয়া উপজেলায় মানুষের কাছে তিনি দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। ন্যায় বিচার ও সততার কারনে সাধারন জনগন শহীদ পরিবারের এই সন্তানের উপর সন্তুষ্ট।

হলদিয়াপালং ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের কফিল উদ্দিন জানিয়েছেন অধ্যক্ষ শাহা আলম ৫ বছর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হয়ে যেই উন্ন করেছে, সেটি উখিয়ার ইতিহাসের অনন্য নজির হয়ে আছে। উপজেলা চেয়ারম্যান হলে শাহ আলম চেয়ারম্যান উখিয়া উপজেলার চেহারা পাল্টে দিবে।

পালংখালীর শাহাবুদ্দিন জানিয়েছেন উখিয়া উপজেলার রাজনৈতিক সকল মেরুকরণ এখন জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী কেন্দ্রিক। তিনি যা করতে পারবেন সেটি অন্য কারো পক্ষে সম্ভব নয়। জনগন নিশ্চয়ই জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী ছাড়া অন্য কারো কথা চিন্তাই করছেনা।

এই দুই প্রার্থীর বাইরে আলোচনায় রয়েছেন উখিয়া উপজেলা বিএনপি সাধারন সম্পাদক ও সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান সুলতান মাহামুদ চৌধুরী। বিএনপি নির্বাচনে আসলে সুলতানা মাহামুদ প্রার্থী হবেন। সেই ক্ষেত্রে সুলতানা মাহামুদের সাথেই অন্য প্রার্থীর লড়াই হবে। যদি বিএনপি নির্বাচনে না আসলে সেই ক্ষেত্রে সুলতানা মাহামুদের নির্বাচন করার সম্ভাবনা কম।

Leave A Reply

Your email address will not be published.